Snehesh

How to install grammerly for opera

Hey guys, we all know that Grammarly is a very famous software for checking grammar and the writing which takes in our content. But the problem is the Grammarly software is only available for some limited browser like Chrome Firefox age and Safari, but nowadays Opera browser is being famous.

And I like the Opera browser very much as it offers many extra facilities than any normal browser doesn’t give us. So for more than 90% of my online activities and content writing stuff, I use the Opera browser.

But the problem is Grammarly doesn’t support Opera browsers directly. If you check in the opera extension market, you will never find the Grammarly extension or you may say it’s a doll in the opera addon Market. That’s why installing Grammarly in the Opera browser is quite tricky. But why fear when Gadget guys are here? We know how to do this. And yes after reading this post or You will know how to install Grammarly extension in your Opera browser.

Though we have made a dedicated video on our YouTube channel if you want you can check that. The link of the video is below but if you want to stay on our blog post, you can follow the following steps.

 

Step 1:

  • Click on the Opera icon at the top left corner of your Opera browser and next click on the extension. And get the extension button. Now you have opened the Opera add-ons Market where you will see an add-on named install the Chrome extension.
  • https://youtu.be/b9SjpbA5rBg
  • Install the add-on in your Opera browser which supports all the assistants and from the chrome web store in your Opera browser as I told you that the opera browser is legendary.

Step 2:

  • After you install the Chrome extension in your Opera browser, just check once in your extension tab if the extension Is properly installed or not?

Step 3:

  • After that go to the Chrome web store. Where you will find the extension name Grammarly for Chrome.
  • Click on the extension banner and you will find an option named add to Opera.
  • Now click on the add to the Opera button and wait.
  • For installing this plug-in Extension It will cost around 40 MB of your data package and the extension will be installed.
  • After installing you have to open again the extension tab of your Opera browser here. Here you will find a new extension called Grammarly for chrome but here you will found another option like install click on the install button and install the Grammarly extension in your Opera browser.
  • How to install grammerly for opera
  • That’s all now you are okay to use your new extension the Grammarly which is the grammar checker software in your Opera browser. You can check out how this is functioning in your blog post back by editing this it is just working fine for me.

I hope this blog post has helped you. You can share with your friends whom you think is need this post. If you have any problem, you can check out our YouTube video where we have explained step by step of the whole process.

Youtube video downloader for pc

It is easy to download YouTube videos on Mobile phones as we have snaptube, TubeMate and any other applications which help us to download YouTube and other videos on our mobile phone. But in the case of PC, we don’t have such type of useful software. I know there are internet download manager and part. It is very tricky to use this IDM in case of downloading videos from YouTube and YouTube doesn’t allow this type of embedded download option.

youtube video downloader

But don’t worry guys. We have a Perfect YouTube downloader for you guys. We have provided the download link for YouTube video downloader for pc in the description of our YouTube video. Just click the download now button and you will find the Google Drive Link where you can download the YouTube video downloader.

We have provided a step-by-step tutorial in our YouTube video on how to use youtube video downloader, but in case you have a lack of data, you can follow our blog.

  1. Step 1 Open a YouTube video from YouTube and copy the URL from the URL tab.
  2. Step 2 Paste the copied URL in the YouTube down video downloader that you have downloaded from our site. It will show you the thumbnail of the YouTube video and it is available. And one of them will be available to download the video. Just click on the download button and your video will be downloaded. No Angel now, enjoy

 

download from gadgetguys

I hope you have loved this blog post and our YouTube video. Don’t forget to like and share our YouTube video and share this post with your friends as they might have a problem with downloading YouTube videos.

What are quantum computer

 

Quantum physics one of the most successful series of modern science, describes the way our world works. At the most fundamental level, quantum computing has become one of the leading applications of quantum physics. Quantum computers have the potential to solve some of the world’s most complex problems, that are beyond the reach of even today’s most powerful supercomputers. Quantum computers are not going to replace classical computers but their radically different way of operating enables them to perform calculations that classical computing cannot let’s see. How they differ classical computers encode information in bits and each bit can represent a 0 or 1. These zeros and ones act as on-off switches that ultimately translate into computing functions to perform a simple calculation like solving a maze.

 

 

A classical computer would test each possible route one at a time to find the correct one, just as classical computers have bits quantum computers have cubits however make use of two key principles of quantum physics superposition and entanglement. superposition means that each qubit can represent a zero a one or both at the same time and entanglement happens when two qubits in a superposition are correlated with one another meaning the state of one whether it’s a 0 a 1 or both depends on the state of another using these two principles qubits can act as a much more sophisticated version of switches helping quantum computers solve difficult problems that are virtually impossible using classical computers to illustrate how this makes quantum computers more powerful.

 

 

Let’s look at some numbers take a classical n bit computer with n representing the number of bits, it can represent and examine only one system state at a time an N cubed computer, however, would have the power to represent 2 to the power of n system states and perform parallel operations on all those states at once this means that every time you add just one more qubit to a quantum computer the number of states that can represent and examine the so a 50 cubit quantum machine could examine two to the power of 50 states at once this exponential increase in power together with the entanglement of qubits is what allows quantum computers to solve certain problems so much more efficiently while a classical computer solves a problem like the maze by
testing each possible route one at a time a quantum computer uses its entangled quantum state to find the correct route quicker with far fewer calculations think of it this way technologies that currently run on classical computers can expertly find patterns and insights buried in vast amounts of existing data.

 

 

Quantum computers will deliver solutions where patterns cannot be seen because
sufficient data does not exist or the possibilities for discovering an optimal answer is too enormous to ever be processed by a classical computer quantum computers could lead to the discovery of new medicines and materials by helping us untangle the complexities of molecular and chemical interactions they could help the financial services industry make better investments by finding new ways to model financial data and isolate key global risk factors they could even transform the supply chain and logistics by finding the optimal routes across global systems like optimizing fleet operations for deliveries during the holiday season quantum computing won’t replace our everyday computers and smartphones but its ability to solve complex problems will open up a new universe of information transforming our view of the world and the way we navigate.

For more amazing technical posts like this don’t forget to turn on the notify button for our website gadgetguys.in

What is Arduino for

Arduino tutorial by Gadgetguys
Arduino tutorial by Gadgetguys

Arduino is a microcontroller, or you can say it is a small CPU. Nowadays which is largely used for making robotics and other technical projects and if you’re wondering what the heck it is, so what is an Arduino at its essence. The Arduino is an electronics tool for making really cool things and people make all types of really awesome things like atomic clocks quadcopters pet feeders art projects 3d printers even electron microscopes and the list goes on and on and it’going to keep going on for a long time to come so you’re probably familiar with the term integrated circuit . An integrated circuit is really just a tiny computer that does some type of computation.

arduino uno programing
Working Arduino

Now traditionally integrated circuits have been a little difficult to figure out how to use usually have to have some electronics knowledge or be able to know how to program in order to get them up and running but what the Arduino team has done is make using a specific integrated circuit so easy to use that somebody without any prior electronics or programming knowledge can really get started relatively simply. Now the way they’ve done this is twofold first, they’ve made the hardware easily accessible so the Arduino board itself is just a printed circuit board. On that printed circuit board is an integrated circuit that you use and on the outside, they have pin headers that allow you to connect to the integrated circuit and then they’ve set it up so you can easily connect it to your computer with a USB cable. Now on the software side they’ve created an entire software programming environment that is very streamlined for somebody who’s just getting started with programming to make it easier than ever to program an Arduino, now I already mentioned a couple of things that people have made with Arduino but what can you really do with an Arduino well you can perform logical computations .So let me give you an example of some logical computations, that are a little more down-to-earth
so an example would be when I press this that happens or when the light comes on
that goes off when this opens I get a tweet if the soil is dry add some water
while the Sun is shiny keeps the air conditioner.

arduino coding
Arduino Coding

Now you could even say something more complicated like when I press this if the sun is shining and the light is touching here then add some water to the soil send me a tweet and turn on the AC those are examples of logical computations that you can make happen with an Arduino now it wouldn’t be the Arduino by itself you’d have to have some extra hardware for a lot of the stuff. But, I think you get the list of what the Arduino can do, as it’s going to be the brain behind all those computations. Now if you think this is pretty cool it gets better and it gets better because the Arduino is extremely affordable it’s going to cost you somewhere between 200 to 1500 INR to get a legitimate Arduino Uno board which is kind of the flagship Arduino and you can do all types of stuff with it in the software you need to program the Arduino is completely open-source and free to download it’s provided by the Arduino team on your Arduino website.

not only is the software open source but the hardware itself the actual circuit board that the Arduino is made of that is also open source so you can download the design files if you feel so inclined to check out how the thing is actually made it’s really pretty cool it has never been easier to make cool electronic projects thanks to Arduino all of those things. we just talked about you can do those with your Arduino you just have to know some basics now. If this sounds cool and you want to learn more then I welcome you to check out our Youtube channel Gadget Guys.
you can also check those out in our website gadgetguys.in , Well hey I hope this is helpful to have a wonderful day and take it easy bye.

Welcome to Arduino
arduino tutorial for beginners
Gadgetguys love Arduino

E Radio for Mahalaya

Welcome Maa Durga by Playing

In Your Mobile Phone

আশ্বিনের শারদপ্রাতে বেজে উঠেছে আলোক মঞ্জীর;
ধরণীর বহিরাকাশে অন্তরিত মেঘমালা;
প্রকৃতির অন্তরাকাশে জাগরিত জ্যোতির্ময়ী জগন্মাতার আগমন বার্তা।
আনন্দময়ী মহামায়ার পদধ্বনি অসীম ছন্দে বেজে উঠে রূপলোক ও রসলোকে আনে নব ভাবমাধুরীর সঞ্জীবন।
তাই আনন্দিতা শ্যামলীমাতৃকার চিন্ময়ীকে মৃন্ময়ীতে আবাহন।
আজ চিৎ-শক্তিরূপিনী বিশ্বজননীর শারদ-স্মৃতিমণ্ডিতা প্রতিমা মন্দিরে মন্দিরে ধ্যানবোধিতা।

মহালয়ার উত্তর ফাল্গুনী নক্ষত্রে, পিতৃ পক্ষের অবসানদেবী পক্ষের শুভ সূচনায় সকলকে মহালয়ার শুভেচ্ছা জানাই,আর মাত্র কিছু দিন বাকি মহামায়ার আবির্ভাবের।

এ বছর দেবীর ঘোড়ায় আগমন ৷দেবী দুর্গার গমনাগমন ঘোটকে হলে চরম বিশৄঙ্খলা এবং ক্ষয়ক্ষতি দেখা দেয় মর্ত্যভূমিতে ৷ ঘোটক অত্যন্ত ক্ষিপ্রগামী, বুদ্ধিমান এবং প্রভুভক্ত ৷ তবুও কখনও কখনও তার আচরণে উদভ্রান্ত ভাবও লক্ষ্য করা যায় ৷ এমন সময় ঘোড়া ছুটতে থাকে লক্ষ্মীর বিপরীতে ৷ঘোড়ার এমন স্বভাবের প্রভাবই মর্ত্যের উপর পড়ে যখন দুর্গা গমনাগমন করেন ঘোটকে ৷ এ ছাড়া দেখা যাচ্ছে দেবী ঘোটকে গমনাগমন করেন মঙ্গলবার বা শনিবার ৷ মঙ্গল গ্রহের সেনাপতি, তেজস্বী ও বীরদর্পী ৷ আর শনি হল কূট বুদ্ধি সম্পন্ন, প্রায়শই অনিষ্টকারী ৷

Mahalaya:Mahishasuramardini Lyrics in Bengali

Mahishasuramardini Lyrics in :

বীরেন্দ্র কৃষ্ণ ভদ্র খ্যাত মহালয়ার মহিষাসুরমর্দিনী অনুষ্ঠানের সম্পূর্ণ লিপি, সংস্কৃত শ্লোকের বঙ্গানুবাদ |

আশ্বিনের শারদপ্রাতে বেজে উঠেছে আলোক মঞ্জীর;
ধরণীর বহিরাকাশে অন্তরিত মেঘমালা;
প্রকৃতির অন্তরাকাশে জাগরিত জ্যোতির্ময়ী জগন্মাতার আগমন বার্তা।
আনন্দময়ী মহামায়ার পদধ্বনি অসীম ছন্দে বেজে উঠে রূপলোক ও রসলোকে আনে নব ভাবমাধুরীর সঞ্জীবন।
তাই আনন্দিতা শ্যামলীমাতৃকার চিন্ময়ীকে মৃন্ময়ীতে আবাহন।
আজ চিৎ-শক্তিরূপিনী বিশ্বজননীর শারদ-স্মৃতিমণ্ডিতা প্রতিমা মন্দিরে মন্দিরে ধ্যানবোধিতা।

মহামায়া সনাতনী, শক্তিরূপা, গুণময়ী।
তিনি এক, তবু প্রকাশ বিভিন্ন—
দেবী নারায়ণী,
আবার ব্রহ্মশক্তিরূপা ব্রহ্মাণী,
কখনো মহেশ্বেরী রূপে প্রকাশমানা,
কখনো বা নির্মলা কৌমারী রূপধারিণী,
কখনো মহাবজ্ররূপিণী ঐন্দ্রী,
উগ্রা শিবদূতী,
নৃমুণ্ডমালিনী চামুণ্ডা,
তিনিই আবার তমোময়ী নিয়তি।
এই সর্বপ্রকাশমানা মহাশক্তি পরমা প্রকৃতির আবির্ভাব হবে, সপ্তলোক তাই আনন্দমগ্ন।

বাজলো তোমার আলোর বেণু,
মাতলো যে ভুবন।
আজ প্রভাতে সে সুর শুনে
খুলে দিনু মন।
অন্তরে যা লুকিয়ে রাজে,
অরুণ বীণায় সে সুর বাজে;
এই আনন্দ যজ্ঞে সবার
মধুর আমন্ত্রণ।
আজ সমীরণ আলোয় পাগল
নবীন সুরের বীণায়,
আজ শরতের আকাশবীণায়
গানের মালা বিলায়।
তোমায় হারা জীবন মম,
তোমারি আলোয় নিরুপম।
ভোরের পাখি উঠে গাহি
তোমারি বন্দন।

হে ভগবতী মহামায়া, তুমি ত্রিগুণাত্মিকা;
তুমি রজোগুণে ব্রহ্মার গৃহিণী বাগ্‌দেবী,
সত্ত্বগুণে বিষ্ণুর পত্নী লক্ষ্মী,
তমোগুণে শিবের বণিতা পার্বতী,
আবার ত্রিগুণাতীত তুরীয়াবস্থায় তুমি অনির্বচনীয়া, অপারমহিমময়ী, পরব্রহ্মমহিষী;
দেবী ঋষি কাত্যায়নের কন্যা কাত্যায়নী,
তিনি কন্যাকুমারী আখ্যাতা দুর্গি,
তিনিই আদিশক্তি আগমপ্রসিদ্ধমূর্তিধারী দুর্গা,
তিনি দাক্ষায়ণী সতী;
দেবী দুর্গা নিজ দেহ সম্ভূত তেজোপ্রভাবে শত্রুদহনকালে অগ্নিবর্ণা, অগ্নিলোচনা।
এই ঊষালগ্নে, হে মহাদেবী, তোমার উদ্বোধনে বাণীর ভক্তিরসপূর্ণ বরণ কমল আলোক শতদল মেলে বিকশিত হোক দিকে-দিগন্তে;
হে অমৃতজ্যোতি, হে মা দুর্গা, তোমার আবির্ভাবে ধরণী হোক প্রাণময়ী।
জাগো! জাগো, জাগো মা!

জাগো, জাগো দুর্গা, জাগো দশপ্রহরণধারিণী।
অভয়া শক্তি, বলপ্রদায়িনী, তুমি জাগো।
জাগো, তুমি জাগো।
প্রণমি বরদা, অজরা, অতুলা,
বহুবলধারিণী, রিপুদলবারিণী, জাগো মা।
শরন্ময়ী, চণ্ডিকা, শঙ্করী জাগো, জাগো মা।
জাগো অসুর বিনাশিনী, তুমি জাগো।
জাগো দুর্গা, জাগো দশপ্রহরণধারিণী।
অভয়া শক্তি, বলপ্রদায়িনী, তুমি জাগো।
জাগো, তুমি জাগো।

দেবী চণ্ডিকা সচেতন চিন্ময়ী, তিনি নিত্যা, তাঁর আদি নেই, তাঁর প্রাকৃত মূর্তি নেই, এই বিশ্বের প্রকাশ তাঁর মূর্তি।
নিত্যা হয়েও অসুর পীড়িত দেবতা রক্ষণে তাঁর আবির্ভাব হয়।
দেবীর শাশ্বত অভয়বাণী—
“ইত্থং যদা যদা বাধা দানবোত্থা ভবিষ্যতি ।।
তদা তদাবতীর্যাহং করিষ্যাম্যরিসংক্ষয়ম্‌ ।।”

পূর্বকল্প অবসানের পর প্রলয়কালে সমস্ত জগৎ যখন কারণ-সলিলে পরিণত হল, ভগবান বিষ্ণু অখিল-শক্তির প্রভাব সংহত করে সেই  কারণ-সমুদ্রে রচিত অনন্ত-শয্যা ‘পরে যোগনিদ্রায় হলেন অভিভূত।
বিষ্ণুর যোগনিদ্রার অবসানকালে তাঁর নাভিপদ্ম থেকে জেগে উঠলেন ভাবী কল্পের সৃষ্টি-বিধাতা ব্রহ্মা।
কিন্তু বিষ্ণুর কর্ণমলজাত মধুকৈটভ-অসুরদ্বয় ব্রহ্মার কর্ম, অস্তিত্ব বিনাশে উদ্যত হতে পদ্মযোনি ব্রহ্মা যোগনিদ্রায় মগ্ন সর্বশক্তিমান বিশ্বপাতা বিষ্ণুকে জাগরিত করবার জন্য জগতের স্থিতি-সংহারকারিণী বিশ্বেশ্বরী জগজ্জননী হরিনেত্র-নিবাসিনী নিরূপমা ভগবতীকে স্তবমন্ত্রে করলেন উদ্বোধিত।
এই ভগবতী বিষ্ণুনিদ্রারূপা মহারাত্রি যোগনিদ্রা দেবী।

ওগো আমার আগমনী আলো,
জ্বালো প্রদীপ জ্বালো।
এই শারদের ঝঞ্ঝাবাতে
নিশার শেষে রুদ্রবাতে
নিভল আমার পথের বাতি
নিভল প্রাণের আলো।
ওগো আমার পথ দেখানো আলো
জীবনজ্যোতিরূপের সুধা ঢালো ঢালো ঢালো।
দিক হারানো শঙ্কাপথে আসবে,
অরুণ রাতে আসবে কখন আসবে,
টুটবে পথের নিবিড় আঁধার,
সকল দিশার কালো।
বাজাও আলোর কণ্ঠবীণা
ওগো পরম ভালো।

তব অচিন্ত্য রূপচরিত মহিমা।
নব শোভা নব ধ্যান রূপায়িত প্রতিমা।
বিকশিল জ্যোতি প্রীতি মঙ্গল বরণে।
তুমি সাধনঘন ব্রহ্ম, গোধন সাধনী,
তব প্রেমনয়নবাতি নিখিল তারণী,
কনককান্তি ঝরিছে কান্ত বদনে।

হে মহালক্ষ্মী জননী, গৌরী, শুভদা,
জয়সঙ্গীত ধ্বনিছে তোমারি ভুবনে।

তখন প্রলয়ান্ধকাররূপিণী তামসী দেবী এই স্তবে প্রবুদ্ধা হয়ে বিষ্ণুর অঙ্গপ্রত্যঙ্গ থেকে বাহির হলেন; বিষ্ণুর যোগনিদ্রা ভঙ্গ হল। বিষ্ণু সুদর্শনচক্র চালনে মধুকৈটভের মস্তক ছিন্ন করলেন।পুনরায় ব্রহ্মা ধ্যানমগ্ন হলেন।

এদিকে কালান্তরে দুর্ধর্ষ দৈত্যরাজ মহিষাসুরের পরাক্রমে দেবতারা স্বর্গের অধিকার হারালেন। অসুরপতির অত্যাচারে দেবলোক বিষাদব্যথায় পরিগ্রহণ হয়ে গেল।
দেবগণ ব্রহ্মার শরণাপন্ন হলেন। ব্রহ্মার বরেই মহিষাসুর অপরাজেয়; তাঁর দ্বারা দৈত্যরাজের ক্ষয় সম্ভবপর নয় জেনে তাঁরই নির্দেশে অমরবৃন্দ কমলযোনি বিধাতাকে মুখপাত্র করে বৈকুণ্ঠে গিয়ে দেখলেন, হরিহর আলাপনে রত।
ব্রহ্মা স্বমুখে নিবেদন করলেন মহিষাসুরের দুর্বিষহ অত্যাচারের কাহিনী। স্বর্গভ্রষ্ট দেবতাকুলের এই বার্তা শুনলেন তাঁরা।
শান্ত যোগীবর মহাদেবের সুগৌর মুখমণ্ডল ক্রোধে রক্তজবার মত রাঙা বরণ ধারণ করলে আর শঙ্খচক্রগদাপদ্মধারী নারায়ণের আনন ভ্রুকূটিকুটিল হয়ে উঠল।
তখন মহাশক্তির আহ্বানে গগনে গগনে নিনাদিত হল মহাশঙ্খ।
বিশ্বযোনি বিষ্ণু রুদ্রের বদন থেকে তেজোরাশি বিচ্ছুরিত হল;
ব্রহ্মা ও দেবগণের আনন থেকে তেজ নির্গত হল।
এই পর্বতপ্রমাণ জ্যোতিপুঞ্জ প্রজ্জ্বলিত হুতাশনের ন্যায় দেদীপ্যমান কিরণে দিঙ্‌মণ্ডল পূর্ণ করে দিলে।
ওই তেজরশ্মি একত্র হয়ে পরমা রূপবতী দিব্যশ্রী মূর্তি উৎপন্ন হল।
তিনি জগন্মাতৃকা মহামায়া। এই আদ্যাদেবী ঋক্‌মন্ত্রে ঘোষণা করলেন আত্মপরিচয়—

অপূর্ব স্ত্রীমূর্তি মহাশক্তি দেবগণের অংশসম্ভূতা; দেবগণের সমষ্টিভূত তেজোপিণ্ড এক বরবর্ণিনী শক্তিস্বরূপিণী দেবীমূর্তি ধারণ করলেন।
এই দেবীর আনন শ্বেতবর্ণ, নেত্র কৃষ্ণবর্ণ, অধরপল্লব আরক্তিম ও করতলদ্বয় তাম্রাভ।
তিনি কখনো বা সহস্রভুজা, কখনো বা অষ্টাদশভুজারূপে প্রকাশিত হতে লাগলেন।
এই ভীমকান্তরূপিণী দেবী ত্রিগুণা মহালক্ষ্মী, তিনিই আদ্যামহাশক্তি।
মহাদেবীর মহামহিমময় আবির্ভাবে বরণগীত ধ্বনিত হয়ে উঠল।

অখিল বিমানে তব জয়গানে যে সামরব,
বাজে সেই সুরে সোনার নুপূরে নিত্যে নব।
হে আলোর আলো, তিমির মিলাল,
তব জ্যোতি সুধা চেতনা বিলাল;
রাগিণী যে ছিঁড়ে গাহিল মধুরে সে বৈভব।

দেবীর আবির্ভাবের এই শুভ বার্তা প্রকাশিত হল।
সকল দেবদেবী মহাদেবীকে বরণ করলেন গীতিমাল্যে, সেবা করলেন রাগচন্দনে।
জগন্মাতা চণ্ডিকা উপাসকের ধনদাত্রী, ব্রহ্মচৈতন্যস্বরূপা সর্বোত্তম মহিমা।
মহাদেবী অন্তর্যামীরূপে ব্যক্ত হয়ে আছেন দ্যুলোক-ভূলোক।
ভুবনমোহিনী সর্ববিরাজমানা জগদীশ্বরী, আপন মহিমায় দ্যাবা পৃথিবী ও সৃষ্টির মধ্যে পরিব্যক্ত হয়ে অবস্থান করেন পরমচৈতন্যরূপা।
মানবের কল্যাণে সর্বমঙ্গলা হোন উদ্বুদ্ধা।

শুভ্র শঙ্খরবে সারা নিখিল ধ্বনিত।
আকাশতলে অনিলে-জলে, দিকে-দিগঞ্চলে,
সকল লোকে, পুরে, বনে-বনান্তরে
নৃত্যগীতছন্দে নন্দিত।
শরৎপ্রকৃতি উল্লাসি তব গানে
চিরসুন্দর চিরসুন্দর চিতসুন্দর বন্দনদানে
ত্রিলোকে যোগে সুরন্ময়ী আনন্দে।
মহাশক্তিরূপা মঞ্জুলশোভা জাগে আনন্দে
মা যে কল্যাণী সদা রাজে,
সদা সুখদা, সদা বরদা, সদা জয়দা, ক্ষেমঙ্করী, সুধা, হ্রদে।
অসুরদশন দশপ্রহরণভুজা রাগে
রণিত বীণাবেণু, মধু ললিত শমিত তানে
শুভ আরতি ঝঙ্কৃত ভুবনে নবজ্যোতি রাগে,
জ্যোতি অলঙ্কারে তানে তানে ওঠে গীতি
সুধারসঘন শান্তি ঝন ঝন জয়গানে।

দেবী নিত্যা, তথাপি দেবগণের কার্যসিদ্ধিহেতু সর্বদেবশরীরজ তেজঃপুঞ্জ থেকে তখন প্রকাশিত হয়েছেন বলে তাঁর এই অভিনব প্রকাশ বা আবির্ভাবই মহিষমর্দিনীর উৎপত্তিরূপে খ্যাত হল।
দেবী সজ্জিতা হলেন অপূর্ব রণচণ্ডী মূর্তিতে।
হিমাচল দিলেন সিংহবাহন,
বিষ্ণু দিলেন চক্র,
পিনাকপাণি শঙ্কর দিলেন শূল,
যম দিলেন তাঁর দণ্ড,
কালদেব সুতীক্ষ্ণ খড়্গ,
চন্দ্র অষ্টচন্দ্র শোভা চর্ম দিলেন,
ধনুর্বাণ দিলেন সূর্য,
বিশ্বকর্মা অভেদবর্ম,
ব্রহ্মা দিলেন অক্ষমালা-কমণ্ডলু,
কুবের রত্নহার।
সকল দেবতা মহাদেবীকে নানা অলঙ্কারে অলঙ্কৃত ও বিবিধপ্রহরণে সুসজ্জিত করে অসুরবিজয় যাত্রায় যেতে প্রার্থনা করলেন।
রণদুন্দুভিধ্বনিতে বিশ্বসংসার নিনাদিত হতে লাগল।
যাত্রার পূর্বে সুর-নরলোকবাসী সকলেই দশপ্রহরণধারিণী দশভুজা মহাশক্তিকে ধ্যানমন্ত্রে করলেন অভিবন্দনা।

দেবী অষ্টাদশভুজামূর্তি পরিগ্রহণ করে শঙ্খে দিলেন ফুৎকার।
দেবীর রণ-আহ্বানশব্দ অনুশরণ করে সসৈন্যে ধাবমান হল মহাবলশালী মহিষাসুর।
অসুররাজ লক্ষ্য করলেন মহালক্ষ্মীদেবীর তেজঃপ্রভায় ত্রিলোক জ্যতির্ময়, তাঁর মুকুট গগন চুম্বন করছে, পদভারে পৃথ্বী আনতা আর ধনুকটঙ্কারে রসাতল প্রকম্পিত।
দেবসেনাপতি মহাশক্তির জয়মন্ত্রের গুণে দেবীকে দান করলেন মহাপ্রীতি।

নমো চণ্ডী, নমো চণ্ডী, নমো চণ্ডী।
জাগো রক্তবীজনিকৃন্তিনী, জাগো মহিষাসুরবিমর্দিনী,
উঠে শঙ্খমন্দ্রে অভ্রবক্ষ শঙ্কাশননে চণ্ডী।
তব খড়্গশক্তি কৃতকৃতান্ত শত্রু শাতন তন্দ্রী
নত সিংহবাহিনী ঘনহুংকারে ইন্দ্রাদি চমূতন্দ্রী।
তুমি রণকতন্ত্র টঙ্কারে হানো খরকলম্বজলে
সব রথ তুরঙ্গ ছিন্ন ছিন্ন সুতীক্ষ্ণ করবালে।
নাচো ধূম্রনেত্র দনুজমুণ্ড চক্রপাতনে খণ্ডী,
তব তাতাথৈ তাতাথৈ প্রলয় নৃত্য ধ্বংসে বাঁধন গণ্ডী।

দেবীর সঙ্গে মহিষাসুরের প্রবল সংগ্রাম আরম্ভ হল।
দেবীর অস্ত্রপ্রহারে দৈত্যসেনা ছিন্নভিন্ন হতে লাগল।
মহিষাসুর ক্ষণে ক্ষণে রূপ পরিবর্তন করে নানা কৌশল বিস্তার করলে।
মহিষ থেকে হস্তীরূপ ধারণ করলে; আবার সিংহরূপী দৈত্যের রণোন্মত্ততা দেবী প্রশমিত করলেন।
পুনরায় নয়নবিমোহন পুরুষবেশে আত্মপ্রকাশ করলে ওই ঐন্দ্রজালিক।
দেবীর রূঢ় প্রত্যাখ্যান পেয়ে আবার মহিষমূর্তি গ্রহণ করলে।
রণবাদ্য দিকে দিগন্তরে নিনাদিত, চতুরঙ্গ নিয়ে অসুরেশ্বর দেবীকে পরাজিত করবার মানসে উল্লসিত।
দেবীর বাহন সিংহরাজ দাবাগ্নির মত সমস্ত রণক্ষেত্রে শত্রুনিধনে দুর্নিবার হয়ে উঠল।
নানাপ্রহরণধারিণী দেবী দুর্গা মধু পান করতে করতে মহিষরূপকে সদম্ভে বললেন,

দেবতাগণ সানন্দে দেখলেন, দুর্গা মহিষাসুরকে শূলে বিদ্ধ করেছেন আর খড়্গনিপাতে দৈত্যের মস্তক ভূলুণ্ঠিত।
তখন অসুরনাশিনী দেবী মহালক্ষ্মীর আরাধনাগীতিসুষমা দ্যাব্যা পৃথিবীতে পরিব্যাপ্ত হল।

মাগো, তব বীণে সঙ্গীত প্রেম ললিত।
নিখিল প্রাণের বীণা তারে তারে রণিত।
সকল রোদন সেই সুরে গেল মরিয়া।
কালি কালি যত জমেছিল দুখযামিনী
ঊষার মূরতি ধরিয়া বাহির রাগিনী।
জীবন ছিল আলোকসুধায় ধরি তাই।

হে দেবী চণ্ডিকা, তোমার পুণ্য স্তবগাথা ঐশ্বর্য, সৌভাগ্য, আরোগ্য, শত্রুহানি ও পরম মোক্ষলাভের উপায়। তোমার স্তবমন্ত্রে মানবলোকে জাগরিত হোক ভূমানন্দের অপূর্ব প্রেরণা।

বিমানে বিমানে আলোকের গানে জাগিল ধ্বনি।
তব বীণা তারে সে সুর বিহারে কি জাগরণে।
অরুণ রবি যে নিখিল রাঙালো,
পূর্ব আঁচলে তন্দ্রা ভাঙালো,
রাঙা হিল্লোলে ধরণী যে দোলে নূপুররণি।

দেবীর অক্ষয় কৃপাকণা পেয়ে সপ্তলোক আনন্দিত।
প্রথম কল্পে দেবী কাত্যায়ান-নন্দিনী কাত্যায়নী, অষ্টাদশভুজা উগ্রচণ্ডারূপে মহিষমর্দন করেন;
দ্বিতীয় ষোড়শভুজা ভদ্রকালীর হতে মর্দিত হয় মহিষ;
আর তৃতীয়ৈঃ বর্তমানকল্পে দশভুজা দুর্গারূপে মহাদেবী সুসজ্জিতা মহিষমর্দিনী।

হে চিন্ময়ী, হিমগিরি থেকে এলে,
এলে তারে রেখে নির্মল প্রাতে।
বসুন্ধরা যে সুবিমল সাজে অঞ্জলি হাতে।
নবনীলিমায় বাজে মহাভেরী,
দিকে দিকে তব মাধুরি যে হেরি,
সুললিত তালে তালে সুধা আনে আলোকেরি সাথে।
সাজাব যে ডালা, গাঁথিব যে মালা জ্যোতির মন্ত্রে,
তাই অন্তরে অমৃত যে ভরে পুলক তন্ত্রে।
বাণী মহাবর অম্লান মনে,
জননী গো নমি রাতুল চরণে,
পূজায় উল্লাসে ধরণী যে হাসে সুরভিত বাতে।

শ্রীশ্রীচণ্ডিকা গুণাতীতা ও গুণময়ী।
সগুণ অবস্থায় দেবী চণ্ডিকা অখিলবিশ্বের প্রকৃতিস্বরূপিণী।
তিনি পরিণামিনী নিত্যার্দিভ্যর্চৈতন্যসৃষ্টিপ্রক্রিয়ায় (নিত্যঃ-আদিভ্যঃ-চৈতন্য-সৃষ্টি-প্রক্রিয়ায়) যে শক্তির মধ্য দিয়ে ক্রিয়াশীলরূপে অভিব্যক্ত হন, সেই শক্তি বাক্‌ অথবা সরস্বতী;
তাঁর স্থিতিকালোচিত শক্তির নাম শ্রী বা লক্ষ্মী;
আবার সংহারকালে তাঁর যে শক্তির ক্রিয়া দৃষ্ট হয় তা-ই রুদ্রাণী দুর্গা।
একাধারে এই ত্রিমূর্তির আরাধনাই দুর্গোৎসব।
এই তিন মাতৃমূর্তির পূজায় আরত্রিকে মানবজীবনের কামনা, সাধনা সার্থক হয়, চতুর্বর্গ (ধর্ম, অর্থ, কাম, মোক্ষ) লাভ করে মর্তলোক।

অমল কিরণে ত্রিভুবন-মন-হারিণী।
হেরিনু তোমার রূপে করুণা নাবনী,
নমি নমি নমি নিখিল চিতচারিণী,
জাগো পুলক নিত্য নূপুরে জননী।
তোমারেই পূজিছে দেবদেবী দ্বারে দ্বারে,
রাগিণী ধ্বনিছে আকাশবীণার তারে,
তনু-মন-প্রাণ নিবেদি তোমারে মনে।
প্রেম সুর ধন পূজা রূপের এ ধরণী
নমি জগতের সকল ক্ষেমকারিণী
লভিনু তোমার প্রেমে করুণা লাবণি।

ষড়ৈশ্বর্যময়ী দেবী নিত্যা হয়েও বারংবার আবির্ভূতা হন।
তিনি জগৎকে রক্ষা ও প্রতিপালন করেন।
দেবীর করুণা অসীম;
বিধাতৃ বরদার করুণার পুণ্যে বিশ্বনিখিল বিমোহিত;
অমৃতরসবর্ষিণী মহাদেবীর অমল রূপের সুষমা প্রতিভাত ধরিত্রীর ধ্যান গরিমায়।

বিশ্বপ্রকৃতি মহাদেবী দুর্গার চরণে চিরন্তনী ভৈরব ধ্যানরতা পূজারিণী ভৈরবীতে গীতাঞ্জলী প্রদান করে ধন্যা হলেন।
তাঁর গীতবাণী আজ অনিলে সুনীলে নবীন জননোদয়ে দিকে দিকে সঞ্চারিত।

শান্তি দিলে ভরি।
দুখরজনী গেল তিমির হরি।
প্রেমমধুর গীতি
বাজুক হৃদে নিতি নিতি মা।
প্রাণে সুধা ঢালো
মরি গো মরি।

 

Durga Puja 2019 Countdown

আসতে আর মাত্র বাকি :
দিন
ঘন্টা
মিনিট
সেকেন্ড
মহালয়ার উত্তর ফাল্গুনী নক্ষত্রে, পিতৃ পক্ষের অবসান ও দেবী পক্ষের শুভ সূচনায় সকলকে মহালয়ার শুভেচ্ছা জানাই,আর মাত্র কিছু দিন বাকি মহামায়ার আবির্ভাবের।

দেখাচ্ছে কতক্ষণ বাকি আছে সেপ্টেম্বর ২৭ তারিখ রাত ৩টে ৪৬ মিনিট বাজতে

আশ্বিনের শারদপ্রাতে বেজে উঠেছে আলোক মঞ্জীর;
ধরণীর বহিরাকাশে অন্তরিত মেঘমালা;
প্রকৃতির অন্তরাকাশে জাগরিত জ্যোতির্ময়ী জগন্মাতার আগমন বার্তা।
আনন্দময়ী মহামায়ার পদধ্বনি অসীম ছন্দে বেজে উঠে রূপলোক ও রসলোকে আনে নব ভাবমাধুরীর সঞ্জীবন।
তাই আনন্দিতা শ্যামলীমাতৃকার চিন্ময়ীকে মৃন্ময়ীতে আবাহন।
আজ চিৎ-শক্তিরূপিনী বিশ্বজননীর শারদ-স্মৃতিমণ্ডিতা প্রতিমা মন্দিরে মন্দিরে ধ্যানবোধিতা।

পুজো আর মাত্র বাকি :
দিন
ঘন্টা
মিনিট
সেকেন্ড
“পুজোর কটা দিন সকলের ভালো যাক সবাইকে জানাই গুড উইশ গুড লাক আনন্দ হাসি গান উইথ লাভ অ্যান্ড মোর ফান বন্ধুত্ব প্রীতি ভালোবাসায় ভরে উঠুক মন প্রাণ”

দেখাচ্ছে কতক্ষণ বাকি আছে ২ তারিখ বিকাল ৪টা ২৫মিনিট বাজতে

  মহালয়া        পরেছে    শনিবার        ২৮ এ সেপ্টেম্বর ২০১৯
মহাপঞ্চমী     পরেছে   বৃহস্পতিবার  ৩রা অক্টোবর ২০১৯
মহাষষ্ঠী        পরেছে   শুক্রবার         ৪ঠা অক্টোবর ২০১৯
মহাসপ্তমী     পরেছে  শনিবার          ৫ঐ অক্টোবর ২০১৯
মহাঅষ্টমী     পরেছে   রবিবার         ৬ঐ অক্টোবর ২০১৯
 মহানবমী     পরেছে  সোমবার         ৭ ঐ  অক্টোবর ২০১৯
বিজয়াদশমী পরেছে মঙ্গলবার         ৮ঐ মঙ্গলবার ২০১৯

নিজের সাথে শেয়ার করুন

All of these information are provided from Bengali Calendar & panjika

This counter is created and managed by GadgetGuys , it is an additional gift for our viewers from Bengal .GadgetGuys wishes everyone a very Happy Mahalaya & Durga Puja in advanced.

Download Adobe Photoshop

Photoshop free Download for

Hey guys , now a days photography and photo editing is a trend . That’s why photo editing softwares are becoming popular.

There are lots of software available in the market , but GadgetGuys recommends you to use the Adobe Potoshop.

There are many famous photo editors like photoscape , picasa and much more but Adobe Photoshop is the most used editor ever.It allows you to apply lots of effects , filters and and to use the pro tools for editing. You have to do some practice to be the master of this software.

Adobe Creative Cloud allows you to buy the product as per your need, if you are a professional you must buy the product for your better quality editing. Well if you are worried if you can make it or not there is a sample version of this product . Use this product for your practice if you think that you are feeling comfortable with this software and its tools , then go for the genuine one .

Well , now you understand something about this giant editor . It’s better to have an in hand experience with this product we have provided two download links for this program . First one is for your practice purpose and when you will become a master go for the official one from the link below.

It is a testing version but not the official version , you can download it for
testing & practice this software . And make yourself confident for this editing tool.

Download From our Server
It is a testing version but not the official version , you can download it for testing & practice this software . And make yourself confident for this editing tool.

It is the official site of adobe . You can download the official products from this site. But remember official products will charge you.

Download the Official Version
It is the official site of adobe . You can download the official products from this site. But remember official products will charge you.

Get a Gun Skin For Free in PUBG PC Lite

Hey , Gamers if you have started playing PUBG PC Lite , its good to have a free gun skin .

What You Need More , just collect one active jio simcard , and here we go for collecting the free gun skin.

Steps:

1) Register yourself with your jio number ( Link is in the below )
2) You will receive one redeem code via your mail
3) Redeem that code from your PUBG PC Lite Store
4) Collect it from your inventory
5) Enjoy your new gun skin

Download Call of Duty Android Beta Version 1.0.1

Hey my gamer friends , Call of Duty is now available for beta testing in India, some of you has granted as the beta tester from pre-register but some are not.

So, i am giving you the direct download link from where you can download the game and can enjoy the fun of its gameplay. Moreover it’s concept is similar to PUBG Mobile but there are something new in this game .You should try this game to feel it’s great graphics and realistic gameplay.

Join our whatsapp group :

Don’t forget to Like our Facebook Page And never miss any game releted updates :

Download  from here (Direct high speed download link)